[রংপুর, বরিশাল ও সিলেট বিভাগ] প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান ২০২৩ PDF প্রকাশিত দেখুন

[রংপুর, বরিশাল ও সিলেট বিভাগ] প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান ২০২৩ PDF প্রকাশিত দেখুন

DPE প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন সমাধান ২০২৩ প্রথম ধাপের ৩ বিভাগের পরীক্ষা তারিখ চূড়ান্ত করা হয়েছে। dpe.gov.bd এর তথ্য মতে ৮ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখ সকাল ১০ ঘটিকা থেকে 11 ঘটিকায় পর্যন্ত প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত পরীক্ষা শেষে সকল শিক্ষার্থীদের কে তাদের পরীক্ষার ৮০টি mcq প্রশ্নের সঠিক সমাধান সহ উত্তরপত্র এখানে প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে থাকেন তাহলে সকল প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেখে নেওয়া জরুরী। এ বছর তিনটি গ্রুপে ভাগ করে সারা বাংলাদেশে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। শুরুতেই রংপুর বরিশাল ও সিলেট বিভাগ প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্নর উত্তর আপনাদেরকে দেখানো হবে। তিনটি বিভাগ থেকে যে সকল জেলার শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা অংশগ্রহণ করবে তাদের তালিকা নিচে দেওয়া হল:

  • রংপুর বিভাগঃ দিনাজপুর, নীলফামারী, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, ঠাকুরগাও, কুড়িগ্রাম, পঞ্চগড়
  • সিলেট বিভাগঃ সিলেট , হবিগঞ্জ , সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার জেলা
  • বরিশাল বিভাগঃ ঝালকাঠি, বরগুনা, পিরোজপুর, ভোলা, পটুয়াখালী, বরিশাল

সকল জেলার পরীক্ষার্থীদের MCQ প্রশ্ন সমাধান প্রকাশিত

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন ব্যাংক pdf প্রকাশ করার পর আমরা এখন সরাসরি ২০২৩ সালে অনুষ্ঠিত পরীক্ষার প্রশ্ন-উত্তর করা নিয়ে আলোচনা করতে ইচ্ছুক রয়েছি। এরই মধ্যে আমরা দেখেছি তিনটি বিভাগের পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশিত হয়েছে। তবে আমরা আশাকরি দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হতে পারে। সেই লক্ষ্যে যারা দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে তারা অবশ্যই প্রথম ধাপের পরীক্ষার প্রশ্ন উত্তর চেক করা ইম্পরট্যান্ট।

অনলাইন থেকে প্রশ্ন সমাধান ডাউনলোড করার নিয়ম

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ MCQ সকল প্রশ্নের ১০০% সঠিক সমাধান দেখার জন্য নিচে নিয়মগুলো অনুসরণ করুন:

  • শুরুতেই আপনাদেরকে গুগলে “প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান” লিখে সার্চ করতে হবে
  • এবার বিডি এক্সাম হেল্পের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন
  • এখান থেকে সর্বশেষ প্রকাশিত ৮ ডিসেম্বর প্রশ্ন সমাধান এই পোস্ট ওপেন করবেন
  • এ পোস্টের সর্ব নিচের দিকে ছবি আকারে আজকের পরীক্ষার সমাধান দেওয়া আছে
  • ছবি থেকে প্রশ্ন সমাধান না দেখতে পেলে পিডিএফ লিংক ক্লিক করুন

উপরোক্ত নিয়ম ফলো করে যে কোন পরীক্ষার্থী তার পরীক্ষার প্রশ্ন সমাধান সবার আগে ডাউনলোড করতে পারবে। যদি কোন প্রকার প্রবলেম মনে হয় তাহলে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে হবে।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ২০২৩ [১ম ধাপ]

আপনারা যারা আজকের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন তারা অবশ্যই বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান সকল প্রশ্নের উত্তর চেক করতে হবে। এ বছর প্রশ্ন হিসেবে মাত্র ৮০টি MCQ দেওয়া হবে। যেটি বিগত বছরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রশ্নের মতোই হবে বলে জানা গেছে। তবে প্রতি বছরের তুলনায় প্রথম ধাপে এ বছর প্রশ্ন কিছুটা সহজ ছিল।

প্রতিষ্ঠানপ্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, বাংলাদেশ
পরীক্ষার্থী সংখ্যা৩ লক্ষ ৭০ হাজার ২৮০ জন
পদের নামসহকারী শিক্ষক
পদ সংখ্যা৫৭৮০ জন
তারিখ8 ডিসেম্বর ২০২৩
বিভাগসমূহরংপুর, বরিশাল ও সিলেট
পূর্ণমান৮০ নম্বর
সময়০১ ঘন্টা
ফলাফল প্রকাশ১২ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখ

বর্তমানে, মেয়ে কোটা বেশি থাকার কারণে প্রাথমিক শিক্ষক হিসেবে জয়েন করার জন্য পুরুষ আবেদনকারী সংখ্যা অনেক কম। তবে আমরা দেখেছি প্রথম ধাপের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র সংখ্যা ৫০ শতাংশের মতো ছিল। আপনারা যারা বিগত বছরের প্রশ্ন সমাধান এখনো চেক করতে পারেননি তারা অবশ্যই আমাদের এখানে দেওয়া পিডিএফ ডাউনলোড লিংক থেকে এখনি চেক করে নিন।

DPE ১ম ধাপ প্রাথমিক শিক্ষক পরীক্ষার প্রশ্ন উত্তর PDF লিংক

বিগত বছরগুলোতে আমরা যত প্রশ্ন সমাধান দেখেছি সকল প্রশ্নের উত্তর গুলো সঠিকভাবে পিডিএফ ফাইল থেকে শিক্ষার্থীরা ডাউনলোড করতে সক্ষম হয়েছিল। যারা প্রথম ধাপের পরীক্ষা শেষ করেছেন আপনারা অবশ্যই জানতে হবে ৭৫ নম্বর না পেলে আপনাদের প্রিলিমিনারি পাশ করা সহজ হবে না। গত বছর ৮০ নম্বরের মধ্যে সর্বোচ্চ ৭৯ নম্বর পেয়ে অনেক শিক্ষার্থী পাস করেছেন।

আজকের পরীক্ষায় অনেক বেশি শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন কিন্তু শিক্ষার্থীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে শূন্য কোটা সংখ্যা অনেক কম। তবে এর ভিতর মুক্তিযোদ্ধা, পোষ্য, নারী বিভিন্ন কোটা থাকার কারণে পুরুষ শিক্ষার্থীরা অনেক বেশি বঞ্চিত হন। এই পরীক্ষায় অনেক বেশি কম্পিটিশন থাকার কারণে আজকে অনুপস্থিতির সংখ্যা অনেক বেশি ছিল।

আপনি সবার আগে এখনই উপরে দেওয়া লিঙ্কগুলো ফলো করে প্রতিটি বিষয়ের সমাধান ডাউনলোড করুন। চারটি বিষয়ের আশিটি প্রশ্ন সকল শিক্ষার্থীদের কে মাত্র এক ঘন্টার ভিতরে উত্তর করতে হয়েছে। তাই সর্বোচ্চ সংখ্যক পরীক্ষার্থী এখান থেকে বাদ পড়া সংখ্যা অনেক বেশি হবে। লিখিত পরীক্ষার জন্য সর্বোচ্চ পাঁচ থেকে ছয় হাজার পরীক্ষার্থী পাস করানো হবে। কাট নম্বর হিসেবে 75 আপনাদেরকে গণনা করা উচিত। এ পরীক্ষা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জানতে আমাদের গ্রুপ ও ফেসবুক পেজ ফলো করুন।